1. admin@idealmediabd.com : Sultan Mahmud : Sultan Mahmud
কুরবানী প্রসঙ্গ ও অন্যান্য বিধান - ইত্তেহাদ টাইমস
মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান এবার উন্মুক্ত স্থানে নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী করোনায় দেশে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৩১ মৃত্যু, শনাক্ত ২২৯৩ প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর রোগমুক্তি কামনায় গোয়াইনঘাট গ্রাম পুলিশের মিলাদ মাহফিল সাঈদুর রহমান লিটনের কবিতা “ফুলকি” দেশের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় তাখাসসুসের মাদরাসা প্রতিষ্ঠা জরুরি : আল্লামা আলিমুদ্দিন দুর্লভপুরী মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করতে কঠোর হচ্ছে সরকার নাইজেরিয়ায় নামাজের সময় মসজিদে সন্ত্রাসীদের হামলা; নিহত ৫ ভাস্কর্য ও মূর্তির অপব্যাখ্যাকারীরা হক্কানী আলেম হতে পারে না: আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের চক্রান্ত বরদাস্ত করা হবেনা: আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় ফজরের নামাজ পড়ানোর সময় ইমামের মৃত্যু

কুরবানী প্রসঙ্গ ও অন্যান্য বিধান

মাওলানা শরিফ আহমাদ
  • প্রকাশটাইম: রবিবার, ১৯ জুলাই, ২০২০

শরিফ আহমাদ

আসছে কুরবানী ঈদ ৷ প্রস্তুতি চলছে সমগ্র দেশে ৷ সীমিত পরিসরে ৷ করোনার মধ্যে ঈদের আগমন ৷ উঠছে ঈদ প্রসংগে নানা কথা ৷ দ্বিধায় আছেন অনেকে ৷ অনেকেই জানতে চাচ্ছেন কুরআন সুন্নাহ ভিত্তিক সমাধান ৷
যেমন প্রশ্ন আসছে কুরবানী ঈদের আগে চুল দাড়ি কাটলে কি পাপ হবে ?
যারা জিলক্বদ মাসের শেষের দিকে চুল নখ ইত্যাদি কর্তন করেছেন, তাদের জন্য জিলহজ্ব মাসের চাঁদ উঠা থেকে নিয়ে কুরবানীর দিন পর্যন্ত চুল নখ না কাটা সুন্নত। কিন্তু প্রয়োজনে কাটলে গোনাহ হবে না।
আর একটু ক্লিয়ার করে বলা যায় যারা ভুলে অবাঞ্ছিত লোমসহ চুল নখ আগে কাটেননি, তাদের এসব বড় হয়ে গেলে কর্তন করতে পারেন।
আব্দুল্লাহ বিন আমর রা. থেকে বর্ণিত নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, আমাকে কুরবানীর দিবসে ঈদ (পালনের) আদেশ করা হয়েছে। যা আল্লাহ এ উম্মতের জন্য নির্ধারণ করেছেন। এক সাহাবী আরজ করলেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ! যদি আমার কাছে শুধু একটি মানিহা থাকে (অর্থাৎ অন্যের থেকে নেওয়া দুগ্ধ দানকারী উটনী) আমি কি তা কুরবানী করতে পারি? নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, না, তবে তুমি চুল, নখ ও মোঁচ কাটবে এবং নাভীর নিচের পশম পরিষ্কার করবে। এটাই আল্লাহর দরবারে তোমার পূর্ণ কুরবানী বলে গণ্য হবে। [সুনানে আবু দাউদ, হাদীস ২৭৮৯; সুনানে নাসায়ী, হাদীস ৪৩৬৫]
হাদীসটি কুরবানী ঈদ সংক্রান্ত হলেও অবাঞ্ছিত লোক কাটার বিষয়টি পাওয়া যায় ৷ কেননা
গোপণাঙ্গের চুল না কাটলে ওখানে জীবাণুর আক্রমণ হতে পারে। লোমের সঙ্গে ময়লা মিশে ছত্রাক জন্ম নিতে পারে ।
এজন্যই ইসলামে প্রতি সপ্তাহে নাভীর নিচ থেকে গোপণাঙ্গসহ অবাঞ্ছিত লোমগুলো পরিষ্কার করা মুস্তাহাব। আর অন্তত ৪০ দিনের মধ্যে একবার কাটা আবশ্যক। ৪০ দিনের পরও অবাঞ্ছিত লোম পরিষ্কার না করা মাকরূহে তাহরীমী। যা গুনাহের কাজ বলে গণ্য হবে ।
হযরত আনাস বিন মালিক রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমাদের জন্য মোচ, নখ কর্তন এবং বগলের চুল ও অবাঞ্ছিত লোম কাটার সময় নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। সেটি হল, যেন তা চল্লিশ দিনের উর্দ্ধে না যায়। [সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২৫৮, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-২৯৫]
প্রসংগক্রমে আরেকটি বিধান জেনে নেওয়া যাক ৷ শরীরের বিশেষ স্থানের লোম কি সম্পূর্ণ চেঁছে/উপড়িয়ে ফেলতে হবে নাকি ছেটে ছোট রাখলেই হবে? ব্লেড, ক্ষুর বা কাঁচি দ্বারা গোপনাঙ্গের লোম পরিস্কার করা পুরুষ ও নারী উভয়ের জন্য জায়েয। অনুরূপভাবে হেয়ার রিমুভার জাতীয় ক্যামিক্যাল দ্বারা পরিস্কার করাতেও শরীয়তের কোন বাধা নেই। তবে পুরুষের জন্য চেঁছে ফেলা এবং মহিলাদের জন্য উপড়িয়ে ফেলা মুস্তাহাব। (কিতাবুল ফিকহ আ’লাল মাযাহিবিল আরবাআ’ ২/৪৫)
সুতরাং কেউ যদি কাঁচি দ্বারা ছোট করে রাখে, তাহলে জায়েয হবে, তবে উত্তম হবে না।

 

লেখক: আলেম, কবি ও আলোচক 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
copyright 2020: ittehadtimes24.com
Theme Customized BY MD Maruf Zakir