1. admin@idealmediabd.com : Sultan Mahmud : Sultan Mahmud
  2. abutalharayhan62@gmail.com : Abu Talha Rayhan : Abu Talha Rayhan
  3. nazimmahmud262@gmail.com : Nazim Mahmud : Nazim Mahmud
  4. tufaelatik@gmail.com : Tufayel Atik : Tufayel Atik
মা তুমি যদি আবার ফিরে আসতে - ইত্তেহাদ টাইমস
মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
৭৫-এ পা রাখলেন শেখ হাসিনা : অকুতোভয় মানসিকতাই যার দেশ গড়ার শক্তি কানাইঘাট দিঘীরপাড় ইউপিতে ভিজিটির চাল বিতরণ কানাইঘাটে ৫শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা : প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন নবির সুন্নাহ দাড়ি কাটায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তা লে বা ন শেখ হাসিনা একমাত্র চরিত্রবান : ওবায়দুল কাদের সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ভয়াবহ দুর্ঘটনা : শিশুসহ নিহত ৩ প্রতিদিন কমলা ও স্ট্রবেরি খাওয়ার উপকারিতা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ, ৩ সংবাদকর্মীসহ আহত ১৩ আকর্ষণীয় বেতনে গুরুত্বপূর্ণ ৬ পদে শিক্ষক ও কর্মচারী নিয়োগ দেবে দারুর রাশাদ মাদরাসা মক্তবে যাওয়ার পথে ট্রাকচাপায় মাদ্রাসাছাত্র নিহত

মা তুমি যদি আবার ফিরে আসতে

শেখ সাদিয়া
  • প্রকাশটাইম: বৃহস্পতিবার, ৫ আগস্ট, ২০২১

আজ বাবার বিয়ে খেতে এসেছি তাঁর সঙ্গে বরযাত্রী হয়ে। বাবার বিয়েতে সবাই অনেক খুশি। আমার ছোট ভাইটা ও কি খুশি! সে বিয়েতে এসছে! সবাই আনন্দ-ফুর্তি করছে বাবাকে নিয়ে। আমি সবার পিছনে হেঁটে এসছি। গাড়ি থেকে নামছি আর ভাবছি আমার মা যদি অকালে মারা না যেতেন তাহলে হয়তো এই দিন দেখতে হত না!

আমি ঐশী মা মরা মেয়ে। পৃথিবীতে মায়ের চেয়ে আপন কেউ নেই সেটা শুনেছি কিন্তু এখন উপলব্ধি করতে পারছি, পৃথিবীতে মা ছাড়া কতটা অসহায় আমি! আমি দশম শ্রেণির ছাত্রী। এবার নবম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণিতে  উত্তীর্ণ হয়েছি। লেখাপড়া ভালো হওয়ায় রোল নং ক্লাসে আট ছিল । বিজ্ঞান বিভাগ নিয়ে পড়াশোনা করছি।মায়ের স্বপ্ন ছিল আমি বড় হয়ে একজন ভালো শিক্ষক হব, বাবার তেমন ইচ্ছে ছিল না। বাবা বলতেন মেয়েরা মেট্রিক পাশ করলেই হল,তারপর ভালো পাত্র দেখে বিয়ে দিলেই হবে। এতো পড়াশোনার প্রয়োজন কী!
আমার মা ব্রেন স্টোক করে হঠাৎ মারা যান । মা যে এভাবে আমাদের ফেলে চলে যাবেন বুঝতে পারি নি।  আমার ভাই দুইটা এতিম হয়ে গেল!
মাকে যখন কাফন পরিয়ে খাটিয়া দিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল তখন মনে হয়েছে, চোখের সামনে আমার মা আমাদেরকে ছেড়ে না যাওয়ার আহাজারি করছেন! হঠাৎ কি থেকে কী হয়ে গেলো!  ব্রেন স্টোক করবেনই না বা কেন!? বাবা যে সবসময় টাকার চাপ দিয়ে রাখতেন!  টাকা দিলে মনে হত আমাদের ঘরে ঈদের, দিন নাহয় মরা বাড়ি! 
সবকিছু  নিয়ে মাকে কখনো কোনো অভিযোগ করতে শুনিনি। চাচীদের মুখে শুনেছি, বাবার হাতে মা অনেক মারধর খেয়েছেন । আমরা তখন ছোট ছিলাম!মা মরার পর বাবা জানি কেমন হয়ে গেছেন। এক প্রকার  মায়ের কাছে থেকে মনে হচ্ছে মুক্তি পেয়েছেন! হঠাৎ বাবা এসে বলেন, মামণি আমি তো তোমাদের জন্য আরেকটা নতুন মা নিয়ে আসব। তোমার কত কষ্ট হয় ঘর গুছাতে, রান্না করতে, তোমার ভাই-বোনও তো ছোট। মামণি তাই তো আমি আরেকটি বিয়ে করব!তাছাড়া তুমি আমার একমাত্র কন্যা। আর তোমার ছোট দুটি ভাই,দুইদিন কমবেশি তোমাকে তো বিয়ে দিতে হবে বলো! তাহলে আমি বাজার যাব নাকি ওদের দেখবো?  সংসার গুছানোর জন্য তো একজন দরকার। আর আমাকে বৃদ্ধ বয়সে কে দেখবে? সবকিছু মিলিয়ে আমার বিয়েটা দরকার। আশা করি তোমাকে  এতো সব বুঝিয়ে বলতে হবে না।তোমরা  আমার বিয়েতে ঝামেলা করবে না!

বাবা ছোট ভাইদের বুঝিয়েছেন নতুন মা আসবে, কত আদর করবে, কত খেলনা দিবে!  অনেক মায়া করবে, ছোট ভাইটা খুব খুশি কিন্তু মেজোটা তেমন খুশি হলো না।আমার মেজো ভাই রবিন সে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র। মা বলেছেন ৫ম শ্রেণিতে সমাপনী পরীক্ষা দিয়ে বৃত্তি পেলে একটা সাইকেল কিনে দিবেন। এখন সেগুলো অতীত ছাড়া কিছু না!

 

‘কি রে ঐশী এখনো দাঁড়িয়ে আছিস কেন তাড়াতাড়ি আয়।( ছোট ফুফুর কথায়  কল্পনা থেকে বের হয়ে আসলাম)।তোদের ভাগ্যও বটে! বাবার বিয়ে খেতে এসেছিস (কথাটা শুনে বুকটা ফেটে গেলো, এই কথাটা সেই বুঝবে কেমন লাগে যার বাবা মায়ের মৃত্যুর পরে বিয়ে করে) ।’কয়েকদিন খুব ভালোই চলল  নতুন মা ঘরে আসায়।
আমার মেজো ভাইটা রবিন ও হুটহাট ঝগড়া লেগে বসে, বাবা এসে কত বিচার করবেন! একদিন এসে নতুন মায়ের কথা শুনে খুব মেরেছিলেন!  তখন ভাইটা আমার আম্মা বলে চিৎকার দিয়ে উঠে বলে ”কই গো  আম্মা তুমি? আব্বা তো আমাকে মেরে ফেলছেন তুমি আমাকে বাঁচাও আম্মা!”ভাইয়ের মুখে এমন কথা শুনে আমার হৃদয়টা ফেটে যাচ্ছে, মা মরলে বাবা কেন তালই হয়ে যায় এখন বুঝলাম! 
সৎ মারা কেন এমন হয়? তারা কেন নিজের সন্তান ভাবতে পারে না! আমাদের সমাজে এমন হাজারটা সৎ মা রয়েছে তারা বুঝে মায়ের কী অভাব! অথচ আমরা নিজের মাকে কতকিছু বলি!  মা থাকতে মায়ের মূল্য  দেই না, এখন থেকে মায়ের মূল্য দিতে শিখুন!

অনেকে বলেন মেয়েরা মায়ের জাত তাও এমন কেন করে? তাহলে বলব মা কিন্তু দুই ভাগে আছে। ১. নিজের মা,২. সৎ মা। কারা কেমন সেগুলো আপনাদের চারপাশে খুঁজলে পেয়ে যাবেন উত্তর। 
বাবার মানসিক অত্যাচার নতুন মায়ের নির্যাতন এবং কাজের চাপ সবগুলো মিলিয়ে আর আমার তেমন পড়াশোনা হয়নি। কোনো রকম এসএসসি পাশ করেছি।  ছোট ভাইটাও বুঝে গেছে নতুন মা কত আদর করতে পারে! রবিন আর সাইকেলের আবদার  করে না। আর আমার শিক্ষকতা তো শুধুই কল্পনাই রয়ে গেছে।  ধরা ছোঁয়ার বাহিরে!

এক সময় আমাকে বিয়ে দেওয়ার জন্য বাবা উঠে পড়ে লাগেন। যতই হোক বাবা তো নিজের মেয়েকে অত্যাচার! একবার মায়া না হলে পরের বার তো রক্ত টান দিবে তাই বিয়ে দিলে যদি মঙ্গল হয়!ছোট ভাইটা ক্লাস টু তে উঠেছে আর রবিন এখন একটা হোটেলে কাজ করছে। ক্লাস সেভেন এ উঠে একপর্যায়ে পড়া হয়নি। এরকম  এলোমেলো হয়ে গেলো আমাদের পরিবার, শেষ হয়ে গেলো আমার মায়ের নিজের হাতে গড়া সোনার সংসার। 

কত স্বপ্ন দেখেছিলেন মা। আমাদের নিয়ে বলতে গেলে সোনার সংসার কিন্তু এগুলো এখন শুধুই কল্পনাতেই রঙিন । বাস্তবে সাদাকালো এবং এলোমেলো! এমন তো হওয়ার কথা ছিল না, কেন এমন হলো?! মা তুমি যদি আবার ফিরে আসতে! আমাদের মতো করে আবার স্বপ্ন দেখতাম তোমাকে নিয়ে!  কতদিন হয়ে গেলো তোমাকে দেখিনা মা, তাও মন বলে তুমি আবার কখনো আসবে! আমরা আবার ভালো থাকব নতুন- নতুন স্বপ্ন দেখব তোমাকে নিয়ে! আসবে তো মা তুমি আমাদের কাছে…?

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
ইত্তেহাদুল উম্মাহ ফাউন্ডেশন-এর একটি প্রতিষ্ঠান copyright 2020: ittehadtimes24.com  
Theme Customized BY MD Maruf Zakir