1. admin@idealmediabd.com : Sultan Mahmud : Sultan Mahmud
উপ-সম্পাদকীয়: সাংবাদিকতা একটি মহান ও চ্যালেঞ্জিং পেশা - ইত্তেহাদ টাইমস
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:১৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
প্রতিবন্ধী মানুষের অধিকার অর্জনে সরকার বিভিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে : সিলেট বিভাগীয় কমিশনার শনিবার মাওলানা আব্দুল মতীন ফাউন্ডেশন সিলেটের শীতবস্ত্র বিতরণ মতবিরোধ পরিহার করে মুসলিমদের এক হওয়ার ডাক দিলেন এরদোগান ট্রাম্প সহিংসতা উসকে দিচ্ছেন, দায় তাকেই নিতে হবে: নির্বাচনী কর্মকর্তা দেশে করোনাভাইরাসে আরও ৩৮ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২১৯৮ বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান এবার উন্মুক্ত স্থানে নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী করোনায় দেশে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৩১ মৃত্যু, শনাক্ত ২২৯৩ প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর রোগমুক্তি কামনায় গোয়াইনঘাট গ্রাম পুলিশের মিলাদ মাহফিল সাঈদুর রহমান লিটনের কবিতা “ফুলকি” দেশের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় তাখাসসুসের মাদরাসা প্রতিষ্ঠা জরুরি : আল্লামা আলিমুদ্দিন দুর্লভপুরী

উপ-সম্পাদকীয়: সাংবাদিকতা একটি মহান ও চ্যালেঞ্জিং পেশা

মাওলানা রশীদ আহমদ
  • প্রকাশটাইম: রবিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২০

বর্তমান যুগ অবাধ তথ্য প্রবাহের যুগ। সারা বিশ্বে চলছে এখন অবাধ-তথ্যপ্রবাহ। উন্মুক্ত আকাশ মিডিয়া। বিশ্বের প্রতিটি রাষ্ট্রের চারিদিকে সীমানাঘেরা কিন্তু আকাশপথের কোন সীমানা নেই। ফলে বিশ্বময় ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনা মানুষ এখন মুহ‚র্তেই জানতে ও শুনতে পারে। অনলাইন ও রিমোট কন্ট্রোলের সুইচে নিয়ন্ত্রিত তথ্যপ্রবাহের এই অবাধ সচলতা ও সফলতা মানুষের সর্বোচ্চ মেধা, দক্ষতা এবং শ্রমের ফসল। বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তির উন্নত কলাকৌশল, গণমাধ্যমের ক্রমবর্ধমান সফলতায় চলমান বিপ্লব চলছে। প্রত্যেক মিডিয়া তার নিজস্ব স্থান ও মানকে আরো সুদৃঢ় করতে ব্যাপক প্রয়াস চালাচ্ছে।

বলাবাহুল্য, বিশ্বের যতো ভালো কাজ হয়- তার প্রশংসা করে কিন্তু প্রচার হয় কম। অন্যদিকে মানুষের খারাপ কাজগুলো দুর্বারগতিতে কাঁটা হয় মানুষের কোমল হৃদয়কে বিদ্ধ করে- এটা ধ্রæব সত্য। মানুষ বরাবরই ভালো কাজকে নিঃসন্দেহে স্বাগত জানায় তেমনই খারাপ কাজগুলোকেও নিন্দা করে। আর এ চাওয়ার মাঝে গণমাধ্যমের ধারায় অতীত এসে যায় সামনে এবং বর্তমান পাড়ি জমায় ভবিষ্যতের দিকে। এটাই চিরন্তন ধারা।

বর্তমান বিশ্বায়নের যুগে তথ্য প্রযুক্তির বিপ্লব যোগাযোগের ক্ষেত্রে নিঃসন্দেহে এক বিস্ময়কর ব্যাপার। সত্যি বলতে কি, গণমাধ্যমের পুরনো ধ্যান-ধারণার এতো দ্রæত পরিবর্তনে মানুষ আজ রীতিমতো চমকিত। অস্বীকার করার নয়, অধুনা তথ্য-প্রযুক্তি দ‚রকে করেছে কাছে। অবিশ্বাসের প্রতি বিশ্বাস স্থাপনের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বলা চলে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে চলছে গোটা বিশ্ব। সোস্যাল মিডিয়া এবং তথ্য প্রযুক্তি মানুষকে দিয়েছে আরো বেশি আশা-ভরসা। এখন মানুষ ছুটে চলেছে অসীম দিগন্তে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির অভাবনীয় উন্নয়ন তথ্যপ্রবাহকে করেছে প্রচÐ গতিময়। মুহ‚র্তেই পৌঁছে যাচ্ছে পৃথিবীর এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্তে পর্যন্ত। মানুষ এখন নিজেকে বিশ্বপল্লীর একজন বাসিন্দা মনে করে। এ ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের গুরুত্ব যে অপরিসীম কোনক্রমেই তা অস্বীকার করার নয়।

সাংবাদিকতা একটি চলন্ত জীবনের শব্দময় প্রতিচ্ছবি। কখনো তা তন্ময়, কখনো বস্তুনিষ্ঠ। এ সাংবাদিকতা ওই প্রতিচ্ছবিকে আপন হৃদয়ে ধারণ করে আবার তাকে সর্বসাধারণের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার এক জটিল পদ্ধতি। একটি বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ ও দ্রæতলয়ের ইতিহাসের এক সংমিশ্রণ; জীবন সমাজ ও রাষ্ট্রের গতি- প্রকৃতি বর্ণনার একটি কৌশল, চিন্তার পরিবর্তন, ধ্যান-ধারণার বিবর্তন, সমাজবিপ্লব কিংবা সাংস্কৃতিক রূপান্তরের ধারক-বাহক। সে শুধু ইতিহাস নির্মাণ করে না, ইতিহাস নির্মাণে সাহায্য করে, পথ নির্দেশও দেয়। সাংবাদিকতা মানুষের জীবন আচরণের এক নিত্যসঙ্গী।

এটি একটি পরম মহৎ ও সম্মানজনক চ্যালেঞ্জিং পেশা। সাংবাদিকতা জীবনের জন্যে ঝুঁকিপ‚র্ণ, কঠোর শ্রমসাধ্য, সীমিত আয় উপার্জন নির্ভর একটি পেশা। তবে এটা পৃথিবীর একটি আদর্শ পেশা হিসেবে স্বীকৃত। তথাপি সবাই একে পেশা হিসেবে নিতে চায় না কিংবা পারে না। কারণ পেশাটি দুঃসাহসিক। আর পৃথিবী তো সাহসী মানুষের জন্যই। সুতরাং সাংবাদিক অবশ্যই পৃথিবীর একজন সাহসী মানুষও বটে।

সাংবাদিক দেশের ও সমাজের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ হবে আর সাংবাদিকতা এটি স্বতঃসিদ্ধ মৌলিক বিষয়। কী হচ্ছে রাষ্ট্রে অথবা কমিউনিটিতে। আমার আপনার চারপাশে। জাগতিক নানা স্বার্থে সংবাদপত্রকে জড়িয়ে ফেলা হচ্ছে। কোন কোন ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের বিতর্কিত করা হচ্ছে। মহান পেশার মহৎ আদর্শকে জলাঞ্জলি দেওয়া হচ্ছে। সাংবাদিকতা বাণিজ্যের ভিড়ে সংবাদপত্র এবং প্রকৃত সাংবাদিকেরা আজ প্রায় নিভৃতে। ফায়দা লুটের ধান্ধায় একশ্রেণীর স্বঘোষিত সাংবাদিকেরা দিন রাত বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ব্যবসায়ী নেতাদের পেছনে সরবে নীরবে সময় কাটাচ্ছে।

ম‚লত এ জগতে সাংবাদিকতা বড় মর্যাদা সম্পন্ন পেশা। পাশাপাশি সুস্থ, সচেতন বিবেকের প্রেরণা ও দায়িত্ব। কিন্তু কোথাও কোথাও বানরের গলায় মুক্তার মালা ঝুলছে, ফলে মুক্তার মালা তার মর্যাদা হারাচ্ছে। শুদ্ধতার মাঝে ঢুকে পড়েছে নাম সর্বস্ব অপ-সাংবাদিকতা। কিছু অশিক্ষিত, কুশিক্ষিতরা বিনিময়ে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন সংবাদপত্রের পরিচয়পত্র বহন করে সাংবাদিকতার নামে সাংঘাতিকভাবে মানুষকে ইজ্জত হরণের নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে, সহজ-সরল, আবেগ-প্রবণ, সাধারণ মানুষের সরলতার সুযোগ নিয়ে প্রতারণায় মেতে উঠেছে। যা সাংবাদিকতা আর সংবাদপত্রের জন্যে সাংঘাতিক হুমকি স্বরূপ।
বস্তুত ‘সাংবাদিক’ শব্দটি ব্যাপক অর্থবোধক। একে কোন সুনির্দিষ্ট সংজ্ঞায় আনা সম্ভব নয়। সাংবাদিক নামের এই পবিত্র শব্দটিকে সম্মান করে, হৃদয়ের গভীরে স্থান দিয়ে, মেধা, মনন, সৃজনশীলতা, সততা ও যোগ্যতার নিরিখে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে এই বিশাল পিচ্ছিল, মোহময় এবং লোভনীয় পথকে জয় করতে হবে।
পরিশেষে এ পেশায় নিয়োজিত সবার প্রতি উদাত্ত আহŸান, আসুন সাংবাদিকতার নামে অপ-সাংবাদিকতা ও সাংঘাতিকতাকে পরিহার করে মহান ও চ্যালেঞ্জিং পেশার মান মর্যাদাকে সমুন্নত রাখার চেষ্টা করি।

লেখক: সম্পাদক, ইয়র্ক বাংলা ও সাংগঠনিক সম্পাদক, নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাব, যুক্তরাষ্ট্র।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
copyright 2020: ittehadtimes24.com
Theme Customized BY MD Maruf Zakir